মৌখিক পরীক্ষার্থীর ত্রুটি (ডিফেন্স গাইড)

পরীক্ষার্থীর ত্রুটি
আসসালামু আলাইকুম সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে আজকের টিউন লেখা শুরু করতেছি। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আমি ও ভাল আছি।
অনেক সময় দেখা যায় পরীক্ষার্থী কতগুলো ভুল বা ত্রুটি করে থাকেন। এসব ত্রুটি তার অকৃতকার্যতার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তো চলুন দেখা যাক যে সকল ত্রুটির কারণে আমরা অকৃতকার্য হয়ে থাকি-
১. সাক্ষাৎকার কক্ষে প্রবেশ ও বিদায় নেয়ার সময় সালাম না দেয়া।
২. নিজেকে জাহির করার মত আচরণ করা।
৩. আঙ্গুলের নখ দাঁত দিয়ে কাটা।
৪. যে কোন জিনিস নিয়ে খেলতে থাকা।
৫. পরীক্ষকগণকে প্রশ্ন করার সময় বাধা প্রদান করা।
৬. না জেনেও উত্তর জানার ভান করা।
৭. অবিবেচকের মত কথা বলা।
৮.‘এই ধরনের ’ ‘আপনি’ কিংবা ‘আমি’ ইত্যাদি অনর্গল বলতে থাকা।
৯. পরীক্ষকগণের প্রতি না তাকান।
১০. প্রশ্নকর্তাকে অবহেলা করা।
১১. মুখে কোন কিছু নিয়ে চিবান।
১২. নিজেকে অত্যন্ত চঞ্চল দেখান।
১৩. না থেমে অনবরত কথা বলা।
১৪. পরীক্ষকের প্রতি অত্যন্ত আক্রমণ প্রবণতা প্রকাশ করা।
১৫. লোক দেখান পোশাক পরিচ্ছদ পরিধান করা।
১৬. পোশাক বা স্বাস্থ্যের প্রতি উদাসীন থাকা।
১৭. হাতের ইশারায় বক্তব্য পেশ করা বা হাত নেড়েচেড়ে বক্তব্য দেয়া।
১৮. মুখ অপরিষ্কার রাখা এবং মুখ থেকে দুগন্ধ বের হওয়া।
১৯. এদিক-সেদিক তাকান।
২০. প্রশ্নের উত্তর দিতে বেশি সময় নেয়া।
২১. অবিরত পা নাড়াচাড়া করা।
২২. টেবিলের উপর হাত দিয়ে হিজিবিজি দাগকাটা।
২৩. অপরিষ্কার বা ইস্ত্রীবিহীন কাপড় পরা।
২৪. শার্টের বোতাম খোলা থাকা বা বুক দেখা যাওয়া।
২৫. চুল এলোমেলো রাখা এবং কপালের উপর চুল ঝুলে থাকা।
২৬. অযৌক্তিক এবং অশোভনভাবে নিজের যোগ্যতাকে প্রমাণ করার চেষ্টা করা।
২৭. না জেনে ভুল উত্তর দেয়া এবং তা নিয়ে তর্ক করা।